আকাশ বার্তা
Next Prev

শুক্রবার চন্দ্রগ্রহণ কোথা থেকে দেখা যাবে? ভারতে কী দৃশ্যমান? জেনে নিন বিস্তারিত

কটার সময় দেখতে পাবেন এই চন্দ্রগ্রহণ? ভারতবর্ষে কী দৃশ্যমান? জানুন

আকাশ বার্তা অনলাইন ডেস্ক :- আমরা সকলেই জানি চাঁদ পৃথিবীকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হয়। আবার পৃথিবী আবর্তিত হয় সূর্যকে কেন্দ্র করে। আর যখনই চাঁদ এবং সূর্যের ঠিক মাঝ খানে একই সরলরেখায় পৃথিবী এসে উপস্থিত হয় তখনই সূর্য আর চাঁদের মাঝখানে পৃথিবী এসে উপস্থিত হওয়ায় সূর্যের আলো পায়না চাঁদ। আর এর ফলেই কিছুক্ষন ধরে দেখা যায়না চাঁদকে।এই ঘটনাটিকেই বলা হয়ে থাকে চন্দ্রগ্রহন।

তবে শাস্ত্র মতে কোন গ্রহন সূর্যই হোক বা চন্দ্র শুভ নয়। এই গ্রহনের প্রভাব পড়ে বেশ কিছু রাশির ওপরেও। তবে নির্দিষ্ট কিছু কাজ করলে অশুভ প্রভাব দূর হয় মানুষের। একইদিনে চন্দ্রগ্রহন এবং কার্তিক পূর্ণিমা পড়ায় এর প্রভাব পড়তে চলেছে বেশ কিছু রাশির ওপর। কাজেই জেনেনিন কিভাবে মুক্তি পাবেন এর অশুভ প্রভাব থেকে। 

চন্দ্রগ্রহনের দিন - আগামী ১৯ শে নভেম্বর শুক্রবার দেখা যাবে চন্দ্রগ্রহন। একই সাথে সেই দিন কার্তিক পূর্ণিমা বা রাস পূর্ণিমাও রয়েছে। 

এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

গ্রহণ লাগার সময় - এই বছরের শেষ চন্দ্রগ্রহন ভারতীয় সময় অনুসারে শুরু হবে সকাল ১১ টা ৩৪ মিনিট থেকে। 

আরও পড়ুন - এই মাসেই শতাব্দীর শেষ চন্দ্রগ্রহণ, ৫৮০ বছর পরে হতে চলেছে এই ঘটনা, ফের হবে ৬৫০ বছর পরে

গ্রহন ছাড়ার সময় - এই চন্দ্রগ্রহনটি চলবে ভারতীয় সময় অনুসারে সন্ধ্যে ৫ টা ৩৩ মিনিট পর্যন্ত। 

কোথায় কোথায় দেখা যাবে চন্দ্রগ্রহন - জানা গেছে এই চন্দ্রগ্রহনটি হতে চলেছে একটি আংশিক চন্দ্রগ্রহন। যদিও ভারতের আসাম ও অরুণাচল প্রদেশ থেকে একেবারেই কম সময়ের জন্য দেখা পাওয়া যাবে এই গ্রহনের। এছাড়াও আমেরিকা, উত্তর ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া, পূর্ব এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল থেকে দেখা মিলবে এই আংশিক চন্দ্রগ্রহনের। 

চন্দ্রগ্রহন চলাকালীন এই নিয়মগুলি পালন করুন - সংসারের উন্নতি ঘটাতে ও আর্থিক সংকট দূর করতে চন্দ্রগ্রহন এর দিন মেনে চলুন এই নিয়মগুলি-

সদর দরজায় প্রদীপ জ্বালান - চন্দ্রগ্রহন এবং একই সাথে সেই দিন পূর্ণিমা তিথি পড়ায় সদর দরজার দুদিকে প্রদীপ জ্বালানো খুবই শুভ। তার সাথেই অকুন রঙ্গলি। জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে আপনি যদি এই কাজগুলি করে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনি মা লক্ষীর কৃপা দৃষ্টি লাভ করবেন। আর এর ফলে আপনার সকল আর্থিক সংকট দূর হবে এবং পরিবারের শান্তি ফিরে আসবে। 

মা লক্ষীকে ভোগ নিবেদন - চন্দ্রগ্রহন এর দিন অবশ্যই মা লক্ষীকে ভোগ দিতে ভুলবেন না। এতে মা লক্ষীর কৃপায় সংসারে শান্তি বিরাজ করবে। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে ভোগ হিসেবে অবশ্যই পায়েস নিবেদন করবেন মা লক্ষীকে। 

আরও পড়ুন - জানেন দরজার বাইরে কেনো ঝোলানো হয় লেবু লঙ্কা? রীতি বা সংস্কার নয়, আছে বৈজ্ঞানিক কারণও!

অশ্বত্থ গাছে দুধ দিন - লোকমুখে অশ্বত্থ গাছ নিয়ে নানান কথা প্রচলিত রয়েছে। অনেকেই বছরের বিভিন্ন সময় অশ্বত্থ গাছে জল বা দুধ দিয়ে থাকেন। তাদের ধারনা এই গাছেই পূর্বপুরুষেরা বাস করেন। তবে বলা হয়ে থাকে অশ্বত্থ গাছে স্বয়ং মা লক্ষী বসবাস করেন।

আর সেই কারনেই বলা হয় আপনার জীবনের সকল অশান্তি দূর করতে এই চন্দ্রগ্রহনের দিন ভক্তিভরে অশ্বত্থ গাছের গোড়ায় দুধ দিয়ে নিজের মনের কথা জানান। অবশ্যই মিলবে উপকার। 

প্রদীপ দান - চন্দ্রগ্রহনের দিন আপনি ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনার সংসারের সুখ শান্তিও। এজন্য আপনাকে নির্দিষ্ট নিয়ম টি মেনে চলতে হবে। এক্ষেত্রে চন্দ্রগ্রহন এর দিন আপনি জ্বলন্ত প্রদীপ গঙ্গায় ভাসাতে হবে। এক্ষেত্রে আপনি অন্যান্য নদীতেও ভাসাতে পারেন প্রদীপ।

তবে আপনি যদি ভক্তিভরে গঙ্গায় প্রদীপ দান করে মনের কথা বলেন এতে মিলবে উপকার। এছাড়াও এই দিন কাকভোরে অর্থাৎ সূর্য ওঠার আগেই গঙ্গা স্নান করা খুবই শুভ ফলদায়ক।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন