আকাশ বার্তা
Next Prev

'তৃণমূল নয় তোলা-মূল তোলা তোলার পার্টি তৃণমূল', তীব্র কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু অধিকারী

'তৃণমূল নয় তোলা-মূল তোলা তোলার পার্টি তৃণমূল', তীব্র কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু অধিকারী

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক-তৃণমূল কংগ্রেস কে উদ্দেশ্য করে আবারো নিজের আক্রমণাত্মক বক্তব্য প্রকাশ করলেন নন্দীগ্রামের বিধায়ক তথা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তৃণমূলকে এদিন তোলা তোলার পার্টি বলে উল্লেখ করলেন শুভেন্দু। শুভেন্দুর কথায়, তৃণমূলের কিছু মাতব্বরেরা প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা থেকে টাকা মারে, 100 দিনের কাজ থেকে কাঠ মানি খায়।এমনকি লক্ষীর ভান্ডার থেকেও ওরা নানান রকম ভাবে টাকা মারছে।

এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

শুভেন্দু অধিকারীর বক্তব্য :এদিন দলীয় কর্মসূচিতে যোগদান করে তৃণমূলকে সন্ত্রাসের দল বলে উল্লেখ করে শুভেন্দু বলেন,"তৃণমূলের চুরির কোন লেভেল নেই। ওদের কাজ বিজেপি কর্মীদের খুন করা, মহিলাদের ইজ্জত নেওয়া, সনাতনীদের বাড়ি ছাড়া করে দেওয়া। ওরা সবসময় মানুষের বাকস্বাধীনতা কেড়ে নেয়। আজকে নির্বাচন-পরবর্তী সন্ত্রাস বিশেষ করে খেজুরি তে গত কয়েক মাসে  প্রায় 8 জন মহিলা নাবালিকা থেকে শুরু করে বৃদ্ধা এই সন্ত্রাস বাহিনীর হাতে পুলিশের অপদার্থতার সুযোগে আক্রান্ত হয়েছে।যার মধ্যে একটি মামলা সিবিআই নিয়েছে ,বাকিগুলি নিয়ে আমাদের লড়াই চলছে।

জেহাদীরা ধর্ষণ করলে বা নারী নির্যাতন হলে সেই খবর আসে না। কিন্তু পিসিমণির বাড়িতে কারেন্ট চলে গেলে কিংবা ভাইপোর চাটার্ড প্লেন অবতরণ না করলে দ্রুত খবর পৌঁছে যায়। গরিবরা বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ পায় না।এরা সেগুলো দেখাবে না কারণ দেখানোর দরকার নেই। কিন্তু আপনারা খুব ভালো করেই জানেন কি ঘটছে। এসব বাহাদুরি বেশিদিন চলবে না।

আরও পড়ুন- প্রতি মাসের শুরুতেই টাকা দেবে রাজ্য সরকার, পড়ুয়াদের আবেদন করতে হবে আজ থেকেই, রইল সহজ পদ্ধতিও

আমরা এরকম অনেক দেখেছি। স্বাধীনতার পরে কংগ্রেস ছাড়া পার্টি ছিল না। অথচ আজকে বিধানসভায় কংগ্রেসের একটাও সদস্য নেই। বামফ্রন্ট একটা সময় আড়াইশোর কাছে সিট জিতেছিল, আজকে তাদেরও একটা বিধায়ক নেই বিধানসভায়। অতি দর্পে হত লঙ্কা। বেশি বাড়তে নেই। যে যত বাড়ে, সে ততো তাড়াতাড়ি ধপ পড়ে"। 


এরপর শুভেন্দু ত্রিপুরা প্রসঙ্গ তুলে বলেন,"ত্রিপুরায় যদি তৃণমূল কংগ্রেস সব জায়গায় খেলা হবে বলে প্রচার করতে পারে, তাহলে পশ্চিমবঙ্গে 55 জন বিজেপি কর্মীকে খুন করা, তিনশোর বেশি মহিলার ইজ্জত নেওয়া, বিজেপি কর্মী ভোটারদের বাড়ি ছাড়া করে দেওয়া! এবারে পশ্চিমবঙ্গ কে কি বলবেন আপনি? এটা একটা জঞ্জাল।

আরও পড়ুন- বড় খবর : মাদক মামলায় জামিন পেলেন বিজেপি নেতা রাকেশ সিং!

ত্রিপুরার বিজেপি ভদ্র বলে, ৩০৭ ধরায় ধরা পড়ার পরেও বিকেলে জামিন পেয়ে যায় (সায়নী ঘোষ কে উদ্দেশ্য করে)"। আপনাদের বলব ঐক্যবদ্ধ থাকুন। ভয় পাবেন না। শক্ত থাকুন। ওরা আমার বিরুদ্ধে অনেক মামলা করেছিল। কিন্তু সব জায়গাতেই ওরা থাপ্পর খেয়েছে"।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন