আকাশ বার্তা
Next Prev

এই ১০ খাবার যৌবন ধরে রাখতে যাদুর মতো কাজ করে, জানেন কী?

সারা জীবন যৌবন ধরে রাখতে এই ১০ খাবারের কোনো বিকল্প হয়না

নিজস্ব প্রতিবেদন:-আমরা কেউ তাড়াতাড়ি বুড়ো বা  বুড়ি হয়ে যেতে চাই না । বয়স বাড়ার সাথে সাথে কমতে থাকে শারীরিক সৌন্দর্যতা ।। তার পাশাপাশি কমতে থাকে স্মৃতিশক্তিও ।  তাই আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের ওষুধ পত্র এবং সার্জারির ব্যবহার করে চলেছি ।  যাতে আমরা একটু বেশি সময় ধরে আমাদের যৌবনকে আটকে রাখতে পারি  নিজেদের শরীরের মধ্যে  । কিন্তু এই সমস্ত সার্জারি বা কৃত্রিম উপায়ে যৌবন ধরে রাখার  জন্য যে ওষুধ ব্যবহার করা হয় তা আপনার শরীর আরও মারাত্মক ক্ষতি করছে । তার পাশাপাশি এই সমস্ত ওষুধগুলো অত্যন্ত ব্যয়বহুল  ।কিন্তু এবার থেকে বাড়িতে বসেই কয়েকটি জিনিস ব্যবহার করলে আপনি আপনার যৌবনকে ধরে রাখতে পারবেন ।।

বিশেষ দশটি উপাদান সমূহ:-টক দই:- টক দই কিন্তু বহু মানুষের প্রিয় খাবার । ভাত এর সাথে হোক বা অলস গ্রীষ্মের দুপুর এর ব্যবহার বেড়ে যায় প্রতিনিয়ত ।  এই টক দই শুধুমাত্র যে রান্নার স্বাদ আনতে সাহায্য করে তেমন কিন্তু নয়  । তার পাশাপাশি যৌবনকে ধরে রাখতে এবং উজ্জ্বলতা কে  বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে । টক দইয়ের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন এবং ক্যালসিয়াম থাকে যা হাড় ক্ষয় প্রতিরোধ করে ।

ডার্ক চকলেট:- আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছেন যারা প্রতিনিয়ত চকলেট খেয়ে থাকে ।  চকলেট এমন একটা জিনিস যেটা আট থেকে আশি সকলের পছন্দ । যারা প্রতিনিয়ত এক টুকরো করে ডার্ক চকলেট খেয়ে থাকেন তারা কিন্তু বেশি সময় ধরে তাদের শরীরের মধ্যে যৌবনতাকে তাকে ধরে রাখতে পারেন ।

এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

আরও পড়ুন-যৌন সম্পর্কের প্রতি আগ্রহ কমছে? জেনে নিন কোন খাদ্যে পাবেন দুর্দান্ত ফলাফল

অলিভ অয়েল:- প্রতিনিয়ত রান্না মধ্যে যদি আপনি অলিভ অয়েল ব্যবহার করেন তাহলে সেটি আপনার ক্লোরেস্টল কমাতে সাহায্য করে এবং শরীরে মেদ জমতে দেয় না ।  যার ফলে আপনি সুন্দর হয়ে ওঠেন প্রতিনিয়ত । এর পাশাপাশি রাত্রে বেলায় যদি অলিভ অয়েল মেখে শুয়ে পড়েন তাহলে কিন্তু ত্বকের বলিরেখা ধীরে ধীরে মলিন হতে শুরু করবে ।

টমেটো ও গাজর:- গাজর  বা টমেটো কিন্তু আপনার বার্ধক্যজনিত প্রভাবকে রুখে দিতে পারে ।  কারণ টমেটো এবং গাজরের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে রয়েছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট , লুমেন এবং বিটা ক্যারোটিন যা আপনার ত্বককে আরও মসৃণ করে তুলবে খুব অল্প সময়ে ।।।।

সামুদ্রিক মাছ:- সামুদ্রিক মাছের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড থেকে থাকে এবং এই সমস্ত অ্যাসিড গুলি আপনার শরীরে প্রোটিনের ঘাটতি পূরণ করে যার ফলে আপনি বহুদিন যাবৎ আপনার যৌবনতাকে  ধরে রাখতে পারেন শরীরের মধ্যে ।

অ্যাভোকাডো:-এমনটা মনে করা হচ্ছে যে অ্যাভোক্যাডো হচ্ছে এমন একটি উপাদান যা শরীরের মেদ কমিয়ে আনতে সাহায্য করে । প্রতিনিয়ত অন্তত একটি করে অ্যাভোকাডো খাওয়ার চেষ্টা করুন ।

আরও পড়ুন-ভাত না রুটি, জানেন রাতের খাবারে কী খাওয়া উচিত? কি বলছে বিশেষজ্ঞরা?

গ্রীন টি:-গ্রিন টি এর স্বাদ অন্যান্য  চা এর তুলনায়  যথেষ্ট পরিমাণে আলাদা হওয়ার কারণে পছন্দের তালিকায় জায়গা পায়নি অনেকের কাছে এই গ্রিন টি ।  তবে আপনি ক এমনটা  জানেন যে এই চায়ের মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা আপনার ত্বককে ভেতর থেকে আরো মসৃণ এবং উজ্জ্বল করে তোলে এবং বার্ধক্যজনিত প্রভাব দূর করে আপনার শরীর থেকে ।

ব্রকলি:- ব্রকলিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং খনিজ ।   যা ত্বকের টিস্যুগুলো ক্ষতি পূরণ করতে সাহায্য করে এবং ত্বককে আরও মসৃণ করে তুলতে সাহায্য করে ।  এর ফলে আপনার শরীর ভেতর থেকে সুন্দর এবং উজ্জ্বল হয়ে ওঠে  ।

পালং শাক:- পালং শাক এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে  যা বুড়িয়ে যাওয়া থেকে রোধ করে আপনাকে  এবং ত্বকের উজ্জলতা অটুট রাখতে সাহায্য করে  । এছাড়া চোখের নিচে কালো দাগ সহ একাধিক সমস্যাগুলো সমাধান করে এই পালং শাক ।

মাশরুম:- মাশরুম মূলত ওজন কমাতে সাহায্য করে । এবং ভিতর থেকে ত্বককে পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে । যার ফলে আপনাকে প্রতিনিয়ত চির নতুন লাগতে শুরু করে ।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন