আকাশ বার্তা
Next Prev

অবাক লাগলেও সত্যি! এই মন্দিরে পুজো দিলে প্রসাদ হিসেবে ফল নয়, দেওয়া হয় সোনা-রূপো এবং নগদ টাকা!

গল্প মনে হচ্ছে? না না গল্প নয়, সত্যিই! এই মন্দিরে পুজো দিলে প্রসাদ হিসেবে মেলে সোনারূপো ও নগদ টাকা!

আকাশ বার্তা অনলাইন ডেস্ক - ভারতবর্ষ একটি বিচিত্র দেশ। এই দেশে একই সাথে নানা ধর্মাবলম্বী বিভিন্ন মানুষ একত্রে বসবাস করে থাকেন। এই দেশের বিভিন্ন স্থানে নানা ঐতিহাসিক স্থান থেকে প্রাচীন মন্দির অভাব নেই কোন কিছুরই।

ভারতে থাকা প্রচুর পুরাতন মন্দির গুলিতে যেমন প্রতিদিনই প্রায় প্রচুর মানুষের ভীড় হয়ে থাকে ঠিক তেমনই মন্দির গুলি আলাদা আলাদা কারনে বিখ্যাত হয়ে আছে। এদেশের এমনই একটি মন্দির হলো মহালক্ষীর মন্দির। এই মন্দিরের প্রসাদ হিসেবে যা দেওয়া হয়ে থাকে তা কার্যত আপনাকে অবাক করবে। 

এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

ভগবান দর্শন -  এ দেশের প্রায় বেশীরভাগ মানুষই ঈশ্বর বিশ্বাসী। সেই কারনেই প্রায় সকলেই মন্দিরে গিয়ে ঈশ্বরের কাছে নিজের ইচ্ছা পূরনের জন্য প্রার্থনা করে বিভিন্ন রকম ফল, বস্ত্র সহ বিভিন্ন দামী রত্ন নিবেদন করা হয়ে থাকে ঈশ্বরের চরনে। যেখানে পুজোর শেষে ঈশ্বরের প্রসাদ হিসেবে ফল মিষ্টি দেওয়া হয়ে থাকে। 

আড়ও পড়ুন -গৃহের কোন ফুল রাখলে কাটে অশান্তি আসে সুখ সমৃদ্ধি ও অর্থ, জানুন কী বলছে বাস্তু

মহালক্ষী মন্দিরের প্রসাদ - তবে আর সকল মন্দিরের থেকে এই মহালক্ষী মন্দিরকে আলাদা করেছে এই মন্দিরের প্রসাদ। অন্যান্য মন্দির গুলিতে যেখানে প্রসাদ হিসেবে ফল , মিষ্টি দেওয়া হয়ে থাকে সেখানে এই মন্দিরে প্রসাদ হিসেবে দেওয়া হয় সোনা, রুপো। না এটা কোন কাল্পনিক ঘটনা নয়। এই ঘটনাটি একেবারেই সত্য একটি ঘটনা। যেই কারনেই দেশ বিদেশ থেকে বহু মানুষ ভীড় জমায় এই মন্দিরে। 

আড়ও পড়ুন -বাড়িতে শঙ্খ রাখলে কী হয় জানেন? এক নয়.. ৬ সুফল পাবেন একসাথে, জানুন

মহালক্ষী মন্দিরের বৈশিষ্ট্য - এহেন মন্দিরটি অবস্থিত মধ্যপ্রদেশের রতলাম জেলার মানিক তলা এলাকায়। মহালক্ষীর এই মন্দিরটি খুবই জাগ্রত একটি মন্দির। জানা যায় বছরের প্রতিটি দিনই এই দেবীর দর্শনে দেশ বিদেশ থেকে মানুষ আসে এই মন্দিরে। বিশেষ করে ধনতেরস এর দিন বহু মানুষ তাদের মনস্কামনা পূর্ন হওয়ায় বা পূর্ণ করার উদ্দেশ্যে মায়ের কাছে অনেক সোনা রুপোর অলংকার নিবেদন করেন।

আড়ও পড়ুন -শুধু পুজোতেই নয়, জানেন বাড়িতে প্রতিদিন শঙ্খ বাজালে কি কি উপকার হয় গৃহের ও শরীরের? জানুন

যেগুলি সব জমা করা হয় মন্দিরের ট্রাষ্টে। আর পরবর্তীতে বিশেষ কোন সময়ে ভক্তদের উদ্দেশ্যে মায়ের প্রসাদ হিসেবে বিতরন করা হয়ে থাকে এই সোনা,রুপোর অলংকারগুলি। আর এই কারনেই মায়ের এহেন প্রসাদ পাওয়ার আশায় ভীড় জমান দেশ বিদেশের প্রচুর ভক্তরা। অনেকের মতে মায়ের এই প্রসাদ পেলে তা যত্ন করে রেখে দিলে মা সকল বিপদ থেকে রক্ষা করেন।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন