আকাশ বার্তা
Next Prev

বেসুরো বিজেপি নেতাদের নিয়ে পিকনিক, কমলা শিবিরে পাওয়া 'অশনি সংকেত' নিয়ে কি বললেন শান্তনু ঠাকুর? জানুন

বেসুরো বিজেপি নেতাদের নিয়ে পিকনিক, কমলা শিবিরে পাওয়া 'অশনি সংকেত' নিয়ে কি বললেন শান্তনু ঠাকুর? জানুন

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক : বঙ্গ বিজেপি রীতিমতো বেসুরো সুর শুনতে শুনতে জেরবার হয়ে গিয়েছে। একুশের ভোটের পূর্ববর্তী সময় এবং বিজেপিতে ছিল খুশির হাওয়া। কিন্তু একুশের ভোটের পরবর্তী পর্যায়ে যখন তৃণমূল সরকারের তৃতীয় বারের আধিপত্য প্রতিষ্ঠা হল বাংলার মাটিতে, তারপর থেকেই বিজেপিতে বিচ্ছিন্নতাবাদের সুর ধ্বনিত হচ্ছে। বেসুরো হয়ে উঠছেন একের পর এক বিজেপি নেতা তার পরই তারা বিজেপির সাথে সমস্ত সম্পর্ক শেষ করে দিচ্ছেন।

এর মধ্যে অনেক বিজেপি নেতা নেত্রীরা প্রত্যাবর্তন করেছেন ঘাসফুলে। যারা নির্বাচনের আগে বলেছিলেন দলে থেকে কাজ করতে পারছি না এবং ফুল বদল করে চলে এসেছিলেন বিজেপিতে, তারাই আবার ঠিক একই সুরে গাইছেন বিজেপিতে থেকে তারা কাজ করতে পারছেন না। এবং পাড়ি জমাচ্ছেন তৃণমূল এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দলের উদ্দেশ্যে। ‌ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা গেছে বিজেপি থেকে তৃণমূলে প্রত্যাবর্তনের সংখ্যাটাই বেশি।

আরও পড়ুন - বিধায়ক পদ ভোগের দিন কি শেষ মুকুলের? স্পিকারকে মুকুল মামলায় দু’সপ্তাহ সময় দান সুপ্রিম কোর্টের
এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

এই আবহের মধ্যে বেসুরো হয়ে উঠেছেন বিজেপির নেতা শান্তনু ঠাকুর (SHANTANU THAKUR) সহ বেশ কয়েকজন। ইতিমধ্যেই শান্তনুর বেসুরো হ‌ওয়ায় তাঁকে তৃণমূলে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন অনেকেই। গতকাল বনগাঁর মাটিতে বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা শান্তনু ঠাকুর সহ বেশ কয়েকজন বেসুরো নেতা পিকনিকে মেতেছিলেন। তাঁরা বলেছেন যে, তাঁরা শুধুমাত্র পিকনিকে মাতামাতি করতেই ওখানে উপস্থিত হয়েছেন।  কিন্তু এই বিষয়টিতে রাজনৈতিক কোনো ইস্যু দেখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। 

কি বলেছেন শান্তনু ঠাকুর? : শান্তনুর পিকনিকে হাজির ছিলেন বিজেপির বিদ্রোহী নেতা জয়প্রকাশ, রীতেশ সহ আর‌ও দুই বিজেপি বিধায়ক। শান্তনু ঠাকুর বলেছেন, "সব জিনিস আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে যে সমাধান হয়ে যাবে সেটা সঠিক নয়। যদি তাই হতো তাহলে স্বাধীনতার জন্য এত বছর ধরে আমাদের সংগ্রাম করতে হত না।

আরও পড়ুন -  অপর্ণা সেনের নামে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ, পুলিশের দ্বারস্থ হলেন বিজেপির এই নেতা, কেন দায়ের এই অভিযোগ?

এই মুহূর্তে বেশ কিছু কিছু আছে যা ভারতীয় জনতা পার্টির ক্ষেত্রে ভবিষ্যতে যথেষ্ট ক্ষতিকারক। যার অশনি সংকেত আমরা পেয়েছি। যে কারণে আমরা তার প্রতিরোধের জন্য একটা অবস্থান তৈরি করেছি। ‌ আমরা এই বিষয়টিকে উত্থাপন করে রাখতে চাইছি যেন এর সমাধান আগামী দিনে অবশ্যই হয়। তার জন্য আমাদের এই কর্মকাণ্ড। সুরের থেকে বেসুরো সুর অনেক সময় শুনতে ভালো লাগে।"

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন