আকাশ বার্তা
Next Prev

স্কুলছাত্রীর গলা কাটলেন প্রতিবেশী যুবক, চাঞ্চল্য ফালাকাটায়!

দশম শ্রেণীর ছাত্রীকে গলা কেটে খুন! নেপথ্যে কি কারন?

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক : কয়েকদিন হল সবে খুলেছে স্কুল (SCHOOL)। দারিদ্র্যের মধ্যেও মেধাবী ছাত্রী টি তৈরি স্কুলে যাওয়ার জন্য। তৈরি হয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে দরজায় তালা দিয়ে দু পা এগিয়ে জীবনে তার নেমে এলো নিকষ কালো অন্ধকার। আকাশ ফুঁড়ে যেন নেমে এলো সাক্ষাৎ মৃত্যু। দায়ের এক কোপে ধড় থেকে ছিটকে গেল মাথা।

বাড়ির সামনেই রক্তে ভেসে গিয়ে দু টুকরো দেহ পড়ে থাকল ওই কিশোরীর। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে আলিপুরদুয়ারের ফালাকাটার (FALAKATA) খলিসামারি তে । এই ঘটনায় পাশের বাড়ির যুবক 22 বছরের স্বপন বিশ্বাসকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পুলিশকে স্বপন জানিয়েছে প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়েই ১৪ বছরের কিশোরী অঙ্কিতা শীল কে খুন করেছে সে। 

আরও পড়ুন-   চাঞ্চল্যকর ঘটনা হাসপাতালে, তৃণমূলের চাপে রোগী সুস্থ না হতেই রোগীকে হাসপাতাল থেকে বিতাড়িত করলেন চিকিৎসক!
এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

কি ঘটনা ঘটেছে? : ১৪ বছরের কিশোরী অঙ্কিতা শীল প্রথম থেকেই মেধাবী ছাত্রী বলে পরিচিত। পারঙ্গেরপার শিশুকল্যাণ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্রী ছিলো অঙ্কিতা। গতকাল স্কুলে যাওয়ার জন্যেই বেরিয়ে ছিলো সে। বাড়ির দরজায় তালা দিয়ে স্কুলের পথে পা বাড়িয়েছিলো সে। তখন‌ও তার হাতে ছিলো মায়ের দেওয়া টিফিন খাওয়ার ৫০ টাকা। তখন‌ই সাক্ষাৎ মৃত্যুদূতের মতো হাজির হয় স্বপন।

তার হাতে ছিলো ধারালো দা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই দায়ের এক কোপে অঙ্কিতার ধড় থেকে মাথা আলাদা করে দেয় স্বপন। অঙ্কিতার রক্তমাখা নিথর দেহ লুটিয়ে পড়ে বাড়ির উঠোনে। রক্তমাখা বাড়ির উঠোনে বসে সমানে কেঁদে চলেছেন অঙ্কিতার বাবা মা। এই মর্মান্তিক খবর পেয়ে সাথে সাথেই অঙ্কিতার বাড়িতে পৌঁছে যান তার স্কুলের শিক্ষকরা। তারাও ঘটনার নৃশংসতায় স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছেন। 

আরও পড়ুন-  লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পে বড়োসড়ো দুর্নীতি! ১৩৪ জনের লক্ষ্মীর ভাণ্ডারের টাকা ঢুকল উপপ্রধানের স্ত্রীর অ্যাকাউন্টে!

কি বলছেন প্রতিবেশীরা? : প্রতিবেশীরা একদিকে অঙ্কিতার এই মর্মান্তিক মৃত্যুতে ভেঙে পড়েছেন, আর একদিকে তারা ক্ষোভের আগুনে ফুঁসছেন। সকলেই একযোগে অভিযুক্ত স্বপনের মৃত্যুদন্ড চাইছেন। প্রতিবেশীরা বলেছেন, "দারিদ্র্যের সাথে লড়াই করেও দারুণ রেজাল্ট করত অঙ্কিতা। স্বপন ওকে বারবার উত্ত্যক্ত করতো। কয়েকদিন আগে হাত ধরে টানাটানি করেছিল অঙ্কিতার। ওর পুরো পরিবারটাই পাগল। কারো সঙ্গে স্বপনের পরিবারের সদ্ভাব নেই।

ফুটফুটে মেয়ে টাকে এভাবে মেরে দিল। ওর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করছি আমরা।" আজ বৃহস্পতিবার অঙ্কিতার মৃতদেহের ময়নাতদন্ত হতে চলেছে। অঙ্কিতার বাবা গোপাল শীল কথা বলার শক্তি হারিয়েছেন। মা বারবার জ্ঞান হারাচ্ছেন। শোকে কাতর হয়ে গিয়েছে অঙ্কিতার ছোট বোন। প্রতিবেশীরা কোনরকমে আগলে রেখেছেন এই পরিবারকে। ময়নাতদন্তের পর আজ শেষবার বাড়ি ফিরবে অঙ্কিতা।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন