আকাশ বার্তা
Next Prev

ঘূর্ণিঝড় 'জাওয়াদ' বেশি প্রভাব ফেলবে পশ্চিমবাংলার এই ২ জেলায়, সতর্ক করল মৌসম ভবন

ত্রাণ শিবিরগুলিকেও প্রস্তুত করা হচ্ছে। আজ সন্ধের মধ্যে মত্‍স্যজীবীদের সমুদ্র থেকে ফিরে আসতে বলা হয়েছে।

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক :  বাংলায় দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। সপ্তাহের অন্তিম লগ্নে কলকাতাসহ (KOLKATA) উপকূল সংলগ্ন জেলায় ঝোড়ো হাওয়ার সাথে অতি ভারী বৃষ্টি সর্তকতা জারি করেছে আবহাওয়া দপ্তর।ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়। এই ঘূর্ণিঝড়ের নাম দেওয়া হয়েছে জাওয়াদ ।

এই নাম দিয়েছে সৌদি আরব। আগামী শনিবার সকালে এটি উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ অথবা উড়িষ্যা উপকূলে আছড়ে পড়তে চলেছে এমনটাই জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে শনিবার সকালে পশ্চিমবঙ্গের সমুদ্র উপকূলে বাতাসের গতিবেগ থাকতে পারে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৫৫ কিলোমিটার। 

আরও পড়ুন-   এক এক মহিলার অ্যাকাউন্টে একমাসে বারবার ঢুকছে লক্ষীর ভান্ডাড়ের টাকা, কেনো জানেন?
এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

সতর্ক করলো আবহাওয়া দপ্তর : মৎস্যজীবীদের শুক্রবার থেকে রবিবার পর্যন্ত সমুদ্রে মাছ ধরতে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। যারা সমুদ্রে আগেই চলে গিয়েছেন তাদের বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার মধ্যে উপকূলে ফিরে আসতে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।  এছাড়াও আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের বেশকিছু জেলায় বৃষ্টি এবং উপকূল ও সংলগ্ন জেলাগুলিতে ঝোড়ো হাওয়ার সাথে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আগামী শনিবার এবং রবিবার ঝোড়ো হাওয়ার সাথে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে উপকূল সংলগ্ন জেলাগুলিতে। আগামী শুক্রবার উপকূলের পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা এবং দক্ষিণ 24 পরগনার বেশ কিছু অংশে হালকা বৃষ্টি হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন-  পরিকাঠামোর অভাব! পশ্চিমবঙ্গের এই জেলার জন্য দুঃসংবাদ, বন্ধ হয়ে গেলো দুয়ারে রেশন!

বাংলার এই দুটি জেলায় পড়বে সবথেকে বেশী প্রভাব : আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে এই ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ ক্ষতি করতে পারে পূর্ব মেদিনীপুর এবং দক্ষিণ 24 পরগনায়। ‌ শনিবার থেকে সোমবার পর্যন্ত পূর্ব মেদিনীপুরের দীঘা, মন্দারমনি, তাজপুর , উদয়পুরের সৈকতে পর্যটকদের সমুদ্রে নামতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এছাড়াও এনডিআর‌এফ (NDRF) এবং এসডিআর‌এফ (SDRF) কে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ত্রাণ শিবির গুলিকে তৈরি রাখা হয়েছে।

আজ সন্ধ্যার মধ্যেই মাছ ধরতে যাওয়া নৌকাগুলিকে ফিরে আসতে বলা হয়েছে। যারা ওই সময়ের মধ্যে ফিরতে পারবেন না তাদের কাছাকাছি কোন দ্বীপে আশ্রয় নিতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুর এবং দক্ষিণ 24 পরগনায় যথেষ্ট সর্তকতা জারি করেছে রাজ্য প্রশাসন।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন