আকাশ বার্তা
Next Prev

টিভির রিমোট আর টয়লেটে লুকিয়ে থাকা করোনার থাবা! কীভাবে বাঁচবেন? জেনে নিন

টিভির রিমোট আর টয়লেটে লুকিয়ে থাকা করোনার থাবা! কীভাবে বাঁচবেন? জেনে নিন

আকাশ বার্তা অনলাইন ডেস্ক - বিগত প্রায় দুই বছর ধরে ভয়ঙ্কর করোনা ভাইরাসের সাথে লড়াই করে চলেছে গোটা বিশ্ববাসী। সম্প্রতি ফের আবারো একবার মারাত্মক আকার ধারন করতে শুরু করেছে করোনার নতুন প্রজাতি ওমিক্রন। এই পরিস্থিতিতে প্রতিদিনই গোটা দেশ জুড়ে প্রায় ৩ লক্ষের কাছাকাছি মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন এই ভাইরাসে।

আর সেই কারনেই দেশের বিভিন্ন রাজ্যে এই সংক্রমনে হ্রাস টানতে ফের জারি করা হয়েছে করোনা বিধিনিষেধ। করোনার সংক্রমনের হাত থেকে মুক্তি পেতে বাড়িতে থাকা বা মাস্ক, স্যানিটাইজার ব্যবহারের ওপর বিশেষ জোর দেওয়ার কথা বলা হচ্ছে তার সাথেই জোর দেওয়া হচ্ছে টিকাকরণেও। 

এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

তবে করোনার প্রথম পর্যায়ে মানুষ গৃহবন্দি অবস্থা কাটালেও বর্তমানে পেট চালানোর তাগিদে বেশীর ভাগ মানুষকেই বেরোতে হচ্ছে রাস্তায়। বিশেষ করে দিন আনা দিন খাওয়া মানুষদের গৃহবন্দি অবস্থা কার্যত ওই দিন না খেয়ে থাকার সমান হয়ে দাঁড়ায়। তবে এছাড়াও বাজার করা থেকে শুরু করে নানা কারনেও রাস্তায় বেরোতে হচ্ছে মানুষকে।

আরও পড়ুন -একেই বলে জামাই আদর, হবু জামাইকে ৩৬৫ পদের খাবার খাওয়াল শশুর বাড়ির পরিবার

এক্ষেত্রে অনেকে পর্যাপ্ত সাবধানতা অবলম্বন না করলেও অনেকেই আছেন যারা সম্পুর্ন ভাবে করোনা বিধিনিষেধ মেনে চলছেন। তবে আশ্চর্যের বিষয় হলো তারপরেও অনেক ব্যক্তিই করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন। যদিও এটি হয়ে থাকছে মূলত সেই ব্যক্তিরই কোন গাফিলতির কারনে। 

করোনার হাত থেকে বাঁচতে বাড়িতে যা করণীয় - করোনা ভাইরাস সম্পর্কে বেশীরভাগ মানুষই মনে করে থাকেন এই ভাইরাস অন্যান্য কোন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি বা কাশি থেকে সুস্থ ব্যক্তির নাক,মুখ দিয়ে প্রবেশ করে তাকেও আক্রান্ত করে। যদিও শুধুমাত্র এই কারনেই কোন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হননা।

বরং বাড়ির মধ্যে থাকা আসবাব পত্র সহ বিভিন্ন জিনিস থেকেও ছড়িয়ে পড়তে পারে এই সংক্রমন। সেই কারনেও অন্যান্য সাবধানতা মেনে চললেও নিয়ম করে আসবাব পত্র স্যানিটাইজ না করায় আক্রান্ত হয়ে পড়ছেন করোনা ভাইরাসে। 

আরও পড়ুন -আপনার শরীরে যদি এই পাঁচটি শারীরিক সমস্যা থাকে ভুলেও খাবেন না কাজু বাদাম, জেনে নিন

গৃহের যেই জিনিসের প্রতি বিশেষ নজর দেওয়া উচিৎ - 

●টয়লেট - অনেকক্ষেত্রেই দেখা যায় বাড়িতে সকলের আলাদা আলাদা ঘর থাকলেও টয়লেট রয়েছে মাত্র একটি। সেক্ষেত্রে গৃহে কোন উপসর্গহীন করোনা রোগী সেই টয়লেট ব্যবহার করে তাহলে টয়লেটেও থেকে যায় সেই ভাইরাস। যার ফলে পরবর্তীতে অন্য কোন সুস্থ ব্যক্তি ওই টয়লেটে গেলে তার মধ্যেও টয়লেট থেকেই ছড়িয়ে পড়তে পারে সংক্রমন। সেই কারনেই এই করোনাকালে টয়লেট সর্বদা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা বিশেষভাবে প্রয়োজন নচেৎ সেখান থেকেই ছড়িয়ে পড়তে পারে সংক্রমন। 

আরও পড়ুন -ওমিক্রনই শেষ নয়, আসতে চলেছে আরও একাধিক স্ট্রেন, কী বলছে বিশেষজ্ঞরা?

●দরজার হাতল - দরজার হাতল সকলেই ধরে থাকেন যার ফলে সেখানেও থেকে যেতে পারে করোনা ভাইরাস। সেই কারনেই দরজার হাতল ধরার আগে এবং পরে হাত এবং হাতল দুটোই ভালো করে স্যানিটাইজ করে নেওয়া প্রয়োজন। 

●টিভির রিমোট - টিভির রিমোট বা মোবাইলের মতো জিনিস গুলিও করোনা ছড়াতে সক্ষম। সাধারণত টিভির রিমোট এ হাত পরে সকলেরই। কাজেই যদি কোন উপসর্গহীন করোনা রোগীর থেকে টিভির রিমোটে করোনা ভাইরাস থেকে যায় তাহলে সেখান থেকেও পরবর্তীতে রিমোট ধরে থাকা সুস্থ মানুষের মধ্যেও ছড়িয়ে পড়তে পারে সংক্রমন।মোবাইলের ক্ষেত্রেও বাইরে বেরিয়ে বিভিন্ন কারনেই মোবাইলে হাত দিতে হয় ফলে সেখানেও করোনা ভাইরাস থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। কাজেই মোবাইল বা রিমোট কেও বারংবার স্যানিটাইজ করা জরুরি।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন