আকাশ বার্তা
Next Prev

অন্তিম সংস্কারের পর কেনো ভুলেও পেছনে ফিরে তাকাতে নেই, জানেন!

আপনারা হয়ত এমনটা অনেকেই শুনেছেন বা জানেন যে অন্তিম সংস্কার এরপর পরিবারের লোকজনদের কে পিছন ফিরে তাকাতে নেই । এর পিছনে পুরাণে কি তথ্য দেওয়া রয়েছে তা জানবো আমরা আজকের এই প্রতিবেদনে।

আকাশবার্তা অনলাইন ডেস্ক:- আমাদের এই শরীর পঞ্চ তত্ব দিয়ে তৈরি। পৃথিবীর জল অগ্নি বায়ু এবং আকাশ দ্বারা তৈরি হয়েছে । কোন ব্যক্তির মৃত্যুর পর তা বিলীন হয়ে যায় এই পঞ্চতত্ত্বে। পৃথিবীর সবথেকে যে কথাটি সত্য সেটি হল মৃত্যু । কোন মানুষ এই পৃথিবীতে জন্মগ্রহণ করলে তার মৃত্যু অনিবার্য । যুধিষ্ঠির  এক সময় বলেছিলেন যে আমরা প্রতিনিয়ত কোনো না কোনো মানুষের মৃত্যু দেখি কিন্তু নিজের মৃত্যু সম্পর্কে তেমন ভাবনা চিন্তা করি না । আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছেন যারা হয়তো এই সমস্ত বিষয়গুলি সাথে আলোচনা করতে ভয় পায় বা মৃত্যু মতন সত্যতাকে গ্রহণ করতে পারে না । এটি একটি চক্রের সমান যা প্রতিনিয়ত অনবরত একই ভাবে পুনরাবৃত্তি ঘটে চলে । কিন্তু আপনারা হয়ত এমনটা অনেকেই শুনেছেন বা জানেন যে অন্তিম সংস্কার এরপর পরিবারের লোকজনদের কে পিছন ফিরে তাকাতে নেই । এর পিছনে পুরাণে কি তথ্য দেওয়া রয়েছে তা জানবো আমরা আজকের এই প্রতিবেদনে ।

এক নজরে আজকের সমস্ত ব্রেকিং নিউজ

পুরাণে দেওয়া তথ্য:-

মানব শরীরের মধ্যে যেমন প্রাণের সঞ্চার রয়েছে ঠিক তেমনি তার মধ্যে ভালোবাসা দুঃখ-কষ্ট রাগ অনুভূতির সবকিছুই বর্তমান থাকে ।  কিন্তু যখন একটি ব্যক্তির মৃত্যু ঘটে তখন তার প্রাণের সাথে সাথে সেই সমস্ত অনুভূতি গুলো নষ্ট হয়ে যায় । কিন্তু  যেটা বিলীন হতে পারেনা সেটা হল আত্মা । পুরাণে এমনটা উল্লেখ রয়েছে যে কোন ব্যক্তির অন্তিম সংস্কার এরপর তার পরিবারের লোকজনদের কে পিছন ফিরে তাকাতে নেই । এ ব্যাপারে অনেক রকম তর্ক বিতর্ক থাকলেও পুরান সম্পর্কিত যে তথ্য তুলে ধরা হয়েছে তা অত্যন্ত যুক্তিযুক্ত ।

আরও পড়ুন - "ভালো মানুষদের সঙ্গে সবসময় কেনো খারাপটাই হয়",- জানেন? বলেছিলেন শ্রীকৃষ্ণ!

ফিরে না তাকানোর কারন কি:-

পুরাণে এমন উল্লেখ রয়েছে এবং বর্ণনা দেওয়া রয়েছে যে কোন ব্যক্তির অন্তিম সংস্কার এর সময় আগুন তার দেহকে অর্থাৎ রক্তমাংসের দেহকে পুড়িয়ে দিতে সাহায্য করলেও আত্মাকে কখনোই বিনষ্ট করতে পারে না ।  সেই আত্মা সেই মুহূর্তে তার চারপাশে ঘোরাফেরা করে  ।আমরা প্রত্যেকেই আমাদের পরিবারে মানুষজনদের কে ভালবাসি । যার ফলে তার সাথে একটা মায়ার বন্ধন তৈরী হয়ে যায় । মৃত্যুর পর আত্মার সাথে এর মায়ার বন্ধন কাটানো অত্যন্ত জরুরী নইলে সেই আত্মা পরলোকে গমন করতে পারে না । এবং পরিবারের আশেপাশে ঘুরে বেড়ানো চেষ্টা করে । 

আরও পড়ুন - জীবনে সব জায়গায় সফলতা চাইলে মেনে চলুন শ্রীকৃষ্ণের এই তিনটি কথা!

তাই শ্মশানঘাটে অন্তিম সংস্কার সময় যদি পরিবারের লোকেরা পিছন না তাকিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে না যেতে পারে তাহলে সেই আত্মা এমনটা মনে করে যে তার পরিবারের লোকজনের এখনও তার প্রতি মায়া রয়েছে  ।যার ফলে সেই আত্মা সেই পরিবারের লোকদের আশেপাশে ঘুরে বেড়ানো চেষ্টা করে এবং তার পরলোকে গমন সম্পন্ন হয় না ও তার আত্মার শান্তি পায় না। এই কারণের জন্যই অন্তিম সংস্কার এরপর পরিবারের লোকজনদের কে পিছন ফিরে তাকাতে বারণ করে ।

আপনি কী এই নিউজগুলি পড়েছেন? পড়ুন আজকের বাছাই করা ব্রেকিং নিউজের আপডেট

রাজনীতি

তথ্য ও প্রযুক্তি

বিনোদন